ফেসবুক থেকে আয় করার সকল উপায় ২০২৪

আপনারা কি জানেন ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম খুব সহজে করা যায়। যে সকল মানুষ আজকে এই ফেসবুক থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় জানেন না তারা আজকে আমাদের এই পেজের লেখাগুলো পড়ে তে থেকেই আপনার কাজ শুরু করে টাকা ইনকাম করুন। ফেসবুক থেকে কিভাবে টাকা ইনকাম করা যায় তথ্যগুলো নিচে দেওয়া হয়েছে।

ফেসবুক থেকে আয় করার সকল উপায়

অপরদিকে, অনেক মানুষ চেষ্টা করে কিভাবে ফেসবুকে ব্যবহার করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা যায়। বা ফেসবুকে ব্যবহার করে কিভাবে লাভবান হওয়া যায়। আপনি যদি ভেবে থাকেন তাহলে আপনি একজন জিনিয়াস ব্যক্তি।

যেহেতু আপনি নতুন তাই আপনারা সর্বপ্রথম দেখে নিবেন যে ফেসবুক সম্পর্কে আমাদের এই পেজে টাকা আয় করার কি কি মাধ্যম রয়েছে। কি কি মাধ্যম ব্যবহার করে আপনারা সবাই থাকেন কাম করতে পারবেন এই ফেসবুক থেকে।

ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় (Earn From Facebook)

আপনারা যদি ফেসবুকে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনারা প্রথমেই ফেসবুক সম্পর্কে ধারণা নিয়ে বা youtube ভিডিও দেখে একটি ফেসবুক প্রোফাইল এবং facebook পেজ তৈরি করবেন। ফেসবুক প্রোফাইলে এবং ফেসবুক পেজ এই দুইটা দুই জিনিস কিন্তু ফেসবুক প্রোফাইল দিয়ে ফেসবুক পেজ চালানো যায়।

সর্বপ্রথম আপনাকে জানতে হবে ফেসবুক প্রোফাইল এবং facebook পেজ সম্পর্কে। আপনি যদি আপনার ফোন কিনবা ল্যাপটপ কম্পিউটার দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করে ফেসবুক/ফেসবুক পেজ একাউন্ট খুলেন, এই অ্যাকাউন্টটি আপনার নিজের ব্যক্তিত্বের প্রতিনিধিত্ব করে থাকবে।

অপরদিকে ফেসবুকে একাউন্ট থেকে নিজের ব্যবসা বা যেকোন শখের তৈরি জিনিসপত্র আপনার ফেসবুক প্রোফাইল কিংবা ফেসবুক পেজে ছাড়তে পারবেন। এতে আপনার সেই মূল্যবান জিনিসগুলো অন্যরাও দেখবে এবং আপনার ফেসবুক প্রোফাইল এবং ফেসবুক পেজ অনেক প্রসারিত। হবে

ফেসবুকে পার্সোনাল এ্যাকাউন্ট থেকে টাকা আয় করার বিশেষ কোনো সুযোগ নেই। ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করার সকল উপায়ই মূলত ফেসবুক পেজ নির্ভর।

কিভাবে ফেসবুক থেকে টাকা আয় করা যায় ? 

আপনাদের ঘরেই স্মার্টফোন অথবা ল্যাপটপ বা কম্পিউটার যদি থাকে তাহলে আপনিও সবার মত facebook থেকে টাকা আয় করতে পারবেন। ফেসবুক থেকে টাকা আয় করার প্রচুর অপশন রয়েছে।

আপনি ফেসবুক থেকে নানা ভাবে টাকা আয় করতে পারবেন ফেসবুক গ্রুপ থেকে ইনকাম করতে পারবেন, ফেসবুক সকল উপায়ে খুব সহজেই ফেসবুক থেকে টাকা ইনকাম করা যায়। ফেসবুক থেকে ইনকাম করার জন্য ভিডিও দেখতে: এখানে চাপ দিন

ফেসবুক থেকে যে উপায়ে টাকা ইনকাম করা যায় যেমন:

  1. ফেসবুক গ্রুপ থেকে ইনকাম
  2. ফেসবুক পেজ থেকে ইনকাম
  3. ফেসবুক মার্কেটপ্লেস থেকে আই
  4. রেফার করে ইনকাম
  5. সোশ্যাল মিডিয়া এক্সপার্ট হিসেবে ইনকাম

ফেসবুক পেইজ থেকে আয়

আপনারা যদি ফেসবুক পেজ থেকে টাকা ইনকাম করতে আগ্রহী থাকেন তাহলে সর্বপ্রথম আপনাকে একটি ফেসবুক পেজ তৈরি করে অনেক বড় করতে হবে।এছাড়াও অনেক নতুন ব্লগ এবং নিউজ পোর্টাল তাদের প্রচারের জন্য বড় বড় ফেসবুক পেইজ ভাড়া নেয় তাদের প্রমোশনের জন্য।

ফেসবুক গ্রুপ থেকে আয়

আপনারা যদি ফেসবুক গ্রুপ থেকে টাকা আয় করতে চান তাহলে আপনাদেরকে একটু কষ্ট করতে হবে।তাছাড়া বর্তমানে ফেসবুক গ্রুপের জন্য ব্র্যান্ড কোলাব নামের একটি অপশন রয়েছে। যেটির মাধ্যমে আপনি স্পন্সর পোস্ট করে টাকা আয় করতে পারবেন।

ফেসবুক পেইজের মতো গ্রুপের মাধ্যমেও কোনো ব্লগ, নিউজ পোর্টাল প্রমোশনের মাধ্যমে টাকা আয় করতে পারবেন। এই গ্রুপ থেকে প্রমোশনের ইনকামে কোনো পরিশ্রম নেই, শুধুমাত্র গ্রুপ মেম্বার বাড়াতে পারলেই হলো।

এছাড়াও অনেকে ফেসবুক গ্রুপ কিনে তাদের ব্যবসার প্রসারের জন্য। সাধারণত ১লক্ষ্য একটিভ মেম্বারের ফেসবুক গ্রুপ ১০ হাজার টাকা পর্যন্ত দামে বিক্রি করা হয়।

এখন আপনার যদি কিছু ফেইক ৫০০০ ফ্রেন্ডের আইডি থাকে তাহলে খুব সহজেই আপনি গ্রুপের মেম্বার বাড়াতে পারবেন। এবার আপনার মাথায় আসতে পারে, ফেসবুক গ্রুপ কিভাবে বিক্রি করবো? হ্যা, খুব সহজেই আপনি ফেসবুক গ্রুপ বিক্রি করতে পারবেন এজন্য রয়েছে ফেসবুক গ্রুপ বিক্রির জন্য গ্রুপ। তাছাড়া রয়েছে এডমিন ডিল সুবিধা, ফলে গ্রুপ বিক্রির সময় প্রতারণার ভয় থাকতেছে না।

 ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং করে ফেসবুক থেকে আয়

আপনি নিজেকে একজন ইনফ্লুয়েন্সার হিসেবে গড়ে তুলে আপনি নিজের ফেসবুক একাউন্ট থেকেই আয় করতে পারেন হাজার হাজার টাকা।আপনি চাইলে এজন্য একটি ফেসবুক পেজও ক্রিয়েট করতে পারেন। ফেসবুক পেজই এক্ষেত্রে বেশি ইফেক্টিভলি কাজ করে।

ব্যক্তিগত পরিচয় কাজে লাগিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কোনো কোম্পানির পণ্যের মার্কেটিং করাই হলো ইনফ্লুয়েন্সার মার্কেটিং। একে ডিজিটাল মার্কেটিং এর সর্বশেষ সংস্করণও বলা যেতে পারে। এই কাজটি ফেসবুক প্রধান সহজ উপায়। টি কাজে লাগিয়ে আপনি মাসে মাসে অনেক টাকা আয় করতে পারেন।

তো বন্ধুরা আপনাদেরকে আমরা আজকে ফেসবুক থেকে কিভাবে কত নিয়মে টাকা ইনকাম করা যায় বিস্তারিত তথ্য জানিয়ে দিলাম। আপনারা যদি এই নিয়মে প্রতিনিয়ত ভিডিও আপলোড করে ভালোভাবে এডিটিং করে প্রতিদিন নিয়মিত কাজ করেন তাহলে একদিন সফলতা পাবেন।

পণ্য বিক্রি করে ফেসবুক থেকে আয়

ফেসবুক থেকে আই করার প্রধান উৎস হল পণ্য বিক্রি করা। আপনি বিভিন্ন আপনার পণ্য ফেসবুক গ্রুপ এবং ফেসবুক পেজের মাধ্যমে যদি পোস্ট করেন তাহলে আপনার পণ্যটি সকল দেশের মানুষ দেখবে এবং আপনার তথ্য অনুযায়ী আপনাকে খোঁজ করবে। এভাবে আপনার পণ্যটি খুব ভালোভাবে বিক্রি করতে পারবেন।

ফেসবুক পেজ বিক্রি করে ইনকাম

মনে করুন, নির্দিষ্ট কোনো লক্ষ্য অর্জনে কিংবা শখের বসে ফেসবুক পেজ খুলে ফেললেন। কিন্তু কিছুদিন পর আর পেজটি ব্যবহার করার আগ্রহ অবশিষ্ট রইলো না। তখন কি করবেন? ফেলে রাখবেন? ফেসবুক পেজ বড় করার উপায় হল আপনার ফেসবুক পেজে অনেক ফলোয়ার এনে বড় করতে হবে। প্রতিদিন নিয়মিত ভিডিও আপলোড দিবেন এতে অনেক বড় হয়ে যাবে ফেসবুক পেজটি।

নাহ্! আপনি চাইলেই আপনার ফেসবুক পেজটি ফেলে না রেখে বিক্রিও করে দিতে পারেন। ফেসবুক পেজ বিক্রি করলে সেই পেজে থাকা ফলোয়ার এবং পাবলিশ করা পোস্টের মানের ভিত্তিতে খুব ভালো পরিমান টাকা ইনকাম করা যাবে। এক সময় দেখবেন আপনার ফেসবুক পেজ অনেক বড় হয়ে গেছে এবং যদি মনে করেন যে আমি এ ফেসবুক পেজটি বিক্রি করে দেব তাহলে সঙ্গে সঙ্গে আপনি আপনার ফেসবুক পেজটি অন্যদের কাছে বিক্রি করে দিতে পারবেন সম্পূর্ণ অনলাইন এর মাধ্যমে।

ফেসবুক পেজ জনপ্রিয় করে তোলার উপায়

পেজের প্রোফাইল এবং কভার পিক অবশ্যই আকর্ষণীয় এবং পেশাদার হতে হবে। প্রয়োজনে লোগো ডিজাইনারদের মাধ্যমে ডিজাইন করিয়ে নিন। এগুলো ডিজাইন করতে বর্তমান প্রেক্ষাপটে ৩০০ থেকে ২০০০ টাকার মতো লাগতে পারে। মনে রাখবেন, সকল ব্যবসার শুরুতেই কিছু না কিছু ইনভেস্ট করতে হয়। যে এসব আইটি সম্পর্কিত কাজ পারে, সে শ্রম ও সময় ইনভেস্ট করে। আর যে পারে না, সে ইনভেস্ট করে টাকা।

ফেসবুক পেজকে দ্রুত জনপ্রিয় করে তুলতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই নতুন একটা ফেসবুক পেজ খুলতে হবে। অনেকেই ফেসবুক আইডিকে পেজে মাইগ্রেট করে ব্যবহার করে। কেউ কেউ আবার বহুদিন যাবৎ ফেলে রাখা পুরাতন কোনো পেজের আগের সব পোস্ট ডিলিট করে নতুন করে তুলতে চায়। এগুলো করলে পেজের পোস্টগুলোর “Reach” কমে যাবে। অর্থাৎ, সবার টাইমলাইনে আপনার পেজের নতুন পোস্ট পৌছাবে না।

পেজের প্রোফাইল এবং কভার পিক অবশ্যই আকর্ষণীয় এবং পেশাদার হতে হবে। প্রয়োজনে লোগো ডিজাইনারদের মাধ্যমে ডিজাইন করিয়ে নিন। এগুলো ডিজাইন করতে বর্তমান প্রেক্ষাপটে ৩০০ থেকে ২০০০ টাকার মতো লাগতে পারে। মনে রাখবেন, সকল ব্যবসার শুরুতেই কিছু না কিছু ইনভেস্ট করতে হয়। যে এসব আইটি সম্পর্কিত কাজ পারে, সে শ্রম ও সময় ইনভেস্ট করে। আর যে পারে না, সে ইনভেস্ট করে টাকা।

প্রতিদিন দিনে কমপক্ষে ২ টা ভালো কিছু পোস্ট করুন। এটা হতে পারে সাধারণ লেখা, ছবি কিংবা ভিডিও।অন্যদের কমেন্টের রিপ্লাই করুন। আপনার পেজটিকে জিবন্ত মনে হবে, যদি নিয়মিত পোস্ট ও কমেন্টের রিপ্লাই করতে পারেন।পেজে লাইক দেয়ার জন্য বন্ধুদের নিয়মিত ইনভাইট করুন। আপনার ফলোয়ারদের কোনো বিষয়ে লোভ দেখিয়ে তাদের দিয়েও ইনভাইট করিয়ে নিতে পারেন।

মাঝে মাঝেই ফলোয়ারদের গিফট দেয়ার ব্যবস্থা করুন। আপনার পেজটি পণ্য বিক্রির পেজ হলে, মাসে বা সপ্তাহে একদিন কিছু ফলোয়ার বা নিয়মিত ক্রেতাকে বিনামূল্যে কোনো পণ্য দিয়ে দিতে পারেন। এই বিনামূল্যে দেওয়ার ব্যপারটা পেজে হালকাভাবে প্রচার করুন। বেশি হাইলাইট করলে ট্রোলের শিকার হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

শেষ কথা

আপনারা যদি ফেসবুক একাউন্ট তৈরি করে অন্যদের মত টাকা ইনকাম করতে চান তাহলে আমাদের এই পেজের লেখাগুলো পড়ে কিভাবে ফেসবুক একাউন্ট খুলে টাকা ইনকাম করবেন তথ্যগুলো দেখুন আপনিও খুব সুন্দর ভাবে প্রতি মাসে ইনকাম করুন। ফেসবুক থেকে ইনকাম করার এ তথ্যটি যদি আপনার কোন বন্ধুবান্ধব এবং ভাই বোনকে শেয়ার করে দিতে চান তাহলে নিচে শেয়ার অপশন দেওয়া হয়েছে সে শেয়ার অপশন এর মাধ্যমে তাদেরকে দিতে পারবেন। আর আপনি যদি সরকারি এবং বেসরকারি চলমান চাকরির সার্কুলার দেখতে চান তাহলে এই অফিসিয়াল ওয়েবসাইট ভিজিট করুন https://jobshirabd.com

ধন্যবাদ ভালো থাকবেন।

Leave a Comment